সর্বশেষ সংবাদ
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বগুড়ার নন্দীগ্রামে পূজার টাকা না পেয়ে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

বগুড়ার নন্দীগ্রামে পূজার টাকা না পেয়ে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ
দুর্গা পূজায় একমাত্র ছেলেকে নতুন শার্ট-প্যান্ট কেনার টাকা দিতে পারেননি দিনমজুর বাবা খগেন চন্দ্র। কলেজপড়ুয়া ছেলে কনক চন্দ্র (১৮) সেই অভিমানে গলায় ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আজ মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের ছোট কঞ্চি গ্রামে।স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ছোট কঞ্চি গ্রামের খগেন চন্দ্র দিন মজুরের কাজ করে সংসার চালানোর পাশাপাশি ছেলে-মেয়ের লেখাপড়ার খরচ জোগান দেন। বড় মেয়ে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্রী। আর ছেলে কনক স্থানীয় হাটকড়ি ডিগ্রী কলেজ থেকে এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরিক্ষার্থী। গতকাল সোমবার থেকে শুরু হওয়া শারদীয় দুর্গা পুজায় ছেলে কনককে নতুন শার্ট প্যান্ট কেনার টাকা দিতে পারেননি আর্থিক সংকটের কারণে। সেই অভিমানে আজ (১২অক্টোবর) মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঘরের তীরের সাথে গলায় দড়ি দিয়ে ফাঁস দেয় একমাত্র ছেলে কনক। বাড়ির লোকজন ঘটনাটি টের পেয়ে দড়ি কেটে নামালেও ততক্ষণে জীবন প্রদীপ নিভে গেছে কনকের। এমনিতেই অভাবের সংসারে পুজার আনন্দ নেই খগেনের পরিবারে।সপ্তমী পূজার দিন সকালে একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে পাগলপ্রায় বাবা-মা। আর সেই সাথে পুরো হিন্দুপাড়ায় দুর্গা পূজার আনন্দ ম্লান হয়ে গেছে কনকের মৃত্যুর সংবাদে।উপজেলার ভাটরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোরশেদুল বারী কনকের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ সৎকার করা হবে।

Advertisement

Check Also

নন্দীগ্রামে সেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কে শোকজ মোঃ আব্দুল গফুর, নন্দীগ্রাম : বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার …