সর্বশেষ সংবাদ
প্রচ্ছদ / রাজশাহী বিভাগ / উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের কঠোর নজরদারিতে এখন পর্যন্ত কাহালু করোনামুক্ত

উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের কঠোর নজরদারিতে এখন পর্যন্ত কাহালু করোনামুক্ত

 

কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্থানীয় মানুষদের সচেতনতা সহ উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত রেখে বগুড়ার কাহালুর মাঠে রয়েছে উপজেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পুলিশের কঠোর নজরদারী। মাইকিং করে জরুরী কাজ ছাড়া বাড়ীর বাইরে না যাওয়ার জন্য আহবান জানাচ্ছেন তারা। জরুরী কাজে যারা বাইরে বের হচ্ছেন তাদের নিরাপত্তার স্বার্থে মাস্ক ব্যবহার করে নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে চলতে বলা হচ্ছে। নিজের এবং পরিবার তথা সমাজের সামগ্রীক স্বার্থে সবাইকে নিরাপদে থাকার আহবান জানান প্রশাসন। প্রতিদিন দুপুরের দিকে বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর সদস্যরা ও কাহালু থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়া লতিফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে একটি দল কাহালুর বিভিন্ন স্থানে জরুরী কাজ ছাড়া বাড়ীর বাইরে না যাওয়ার জন্য আহবান জানান।
কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান এর নেতৃত্বে সেনা বাহিনী ও পুলিশের একটি দল প্রতিনিয়ত কাহালু উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার, ঔষধের দোকান সহ কাঁচা বাজারে গিয়ে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে জনগনকে সার্বিক ভাবে সরকারের আইন মেনে চলার আহবান জানানো হচ্ছে। এছাড়াও জরুরী কাজ ছাড়া বাড়ীর বাইরে না যাওয়ার অনুরোধ করা হচ্ছে। মাঝে মধ্যে করোনা ঠেকানোর কৌশল পরিবর্তনে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে বিভিন্ন গুরুত্ব পয়েন্টে চেকপোষ্ট বসানো হচ্ছে। আবার বিভিন্ন স্থানে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের টহল জোরদার করে
বাজারে অহেতুক ঘোরাফেরা ও নিদিষ্ট সময় পার হওয়ার পর দোকান খোলার
অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাদের জরিমানা করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত
হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাড়িগুলো পরিদর্শন করেন উপজেলা প্রশাসন,
সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্যরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ মুহাম্মদ যাকারিয়া রানা, কাহালু থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়া লতিফুল
ইসলাম ও সেনা বাহিনীন ক্যাপ্টেন সহ অন্যান্য সদস্যরা। একাধিক জনপ্রতিনিধিরা জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান কাহালুতে যোগদানের পর থেকেই জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে সমন্বয় করে দিনে-রাতে কাহালু উপজেলাবাসীর জন্য নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এমন নিষ্ঠাবান-কর্মঠ ও মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন ইউএনও অতীতে খুব কম পেয়েছে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় তিনি
কাহালুতে যে ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন তাও নজিরবিহীন। তাঁর কর্মকান্ডে
মনে হচ্ছে তিনি কেবল ইউএনও নন, কাহালু উপজেলার একজন সচেতন অভিভাবকও। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার শুরু থেকেই সতর্ক অবস্থানে
ছিলো। প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে জনসচেতনতামূলক কর্মকান্ড চালিয়ে আসছিলেন।

সেক্ষেত্রে কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান একটি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। কাহালু উপজেলার জনগণকে সুরক্ষিত রাখতে এবং করোনা ভাইরাস বিস্তাররোধে তিনি নানামুখী কর্মকান্ড শুরু থেকে প্রতিনিয়ত অব্যাহত রেখেছেন। তিনি দিনে-রাতে নিরলস ভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। ইউএনওকে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা দিয়ে যাওয়ার জন্য প্রশাসনের কর্মকর্তা ও সাংবাদিকদের আন্তরিক ধন্যবান জানান এবং এখনো কাহালু উপজেলাকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অবদান রেখে যাচ্ছেন তিনি। কাহালু থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান অত্যন্ত
পরিশ্রমী একজন কর্মকর্তা। তিনি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে সার্বক্ষণিক খোঁজ খবর নিচ্ছেন এবং উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক ভূমিকা পালন সহ কাহালু থানা পুলিশের সার্বক্ষণিক খোঁজ খবর নিচ্ছেন। কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান জানান, কাহালু উপজেলায় যোগদানের পর থেকে গণ-প্রজাতন্ত্রের একজন সেবক হিসেবে অর্পিত দায়িত্ব পালন করছি মাত্র। করোনা পরিস্থিতিতেও সরকারি নির্দেশনা মতে কাজ করে যাচ্ছি। সারাদেশের ইউএনও সহ সরকারি কর্মকর্তারা যেভাবে কাজ করছে আমিও সেভাবে কাজ করছি। চলমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় অনেক জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা-
কর্মচারি, পুলিশ বিভাগের কর্মকর্তা ও সাংবাদিক সহ অনেকে সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছেন। এজন্য তিনি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। ইউএনও আরো জানান, করোনা ভাইরাস নিয়ে সাধারণ মানুষ আতংকিত। তিনি করোনা সংক্রমণ রোধে সবাইকে নিজ নিজ বাড়ীতে অবস্থান করারও অনুরোধ জানান। এখনো পর্যন্ত কাহালু উপজেলা করোনামুক্ত বলে তিনি আরও জানান।

Advertisement

Check Also

  অনলাইন ডেস্ক ঃ বগুড়ায় স্থগিত ৪টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দুইটিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published.