সর্বশেষ সংবাদ
প্রচ্ছদ / স্বাস্থ্য / রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এই প্রথম আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন চালু, ডাক্তার সহ ১৩টি পদ শূন্য।

রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এই প্রথম আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন চালু, ডাক্তার সহ ১৩টি পদ শূন্য।

জাকির সিকদার, রাজাপুর (ঝালকাঠি) উপজেলা প্রতিনিধি ঃ
২৮/১০/২০
ঝালকাঠির রাজাপুরের ৩১ সয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি ১৯২০ সালে প্রতিষ্ঠা করা হলেও ২০১৯ সাল পর্যন্ত কোন আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন না থাকায় এলাকার গর্ভবতী মায়েরা চেকআপের সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলো। ওটি’র কনসালন্টেন্ডের (ডাক্তার) ৫টি পদ,এক্সরে মেশিনের টেকনিশিয়ানের ১টি পদ,ওয়ার্ড বয়ের ৪টি পদ ও ঝাড়–দারের ৩টি পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্য রয়েছে। এলাকার সন্তান ডাক্তার আবুল খয়ের মাহামুদ রাসেল এই বছরের শুরুর দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসাবে যোগদান করার পরে তার চেষ্টায় আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিনটি সরকারীভাবে স্থাপন করা হয়েছে। ডাক্তার আবুল খয়ের মাহামুদ রাসেল জানান, আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিনটি স্থাপন করা হয়েছে এবং এলাকার গর্ভবতী মায়েদেরকে বিনা মুল্যে এএনসি চেকআপকরা হয়। ২০০৯ সালে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি ৩১ সয্যা থেকে ৫০ সয্যায় উন্নিত করা হয় এবং সেখানে অপারেশনের জন্য কক্ষ থাকলেও এপর্যন্ত সেটা চালু করা সম্ভব হয়নি। কিছু যন্ত্রপাতির সমস্যা আছে। তার জন্য চাহিদাপত্র ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। চলতি অক্টোবর মাসের শেষের দিকে পাওয়া যাবে। ওটির কনসালন্টেন্ডের ৫টি পদ প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই শূন্য রয়েছে। ওটি’র যন্ত্রপাতি পেলে জেলা সদর হাসপাতালের সাথে সমন্বয় করে কমপক্ষে সপ্তাহে একদিন করে সম্ভ্যাব্য অপারেশনগুলি করা হবে বলে চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন,দাতের চিকিৎসার ব্যাবস্থা ছিলোনা, সেটাও তার চেষ্টায় চালু করা হয়েছে। বর্তমানে দাতের সবধরনের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। টেকনিশিয়ানের অভাবে এক্সরে মেশিনটি ১০ বছর বন্ধ থাকার পরে কিছুদিন

Advertisement

Check Also

নন্দীগ্রামে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার নন্দীগ্রামে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী …