দুপচাঁচিয়ায় নবান্নের মাছের মেলা

গোলাম মুক্তাদির সবুজ, দুপচাঁচিয়া বগুড়াঃ বাংলার ঐতিহ্য বুকে ধারন করে আগামী ১৬ নভেম্বর রাত থেকে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া সিও ব্যাসট্যান্ড সংলগ্ন কাঁচাবাজারে চলবে বিরাট মাছের মেলা। প্রতি বছরের ন্যায় দুপচাঁচিয়া মৎস্য আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমিতির আয়োজনে নবান্নের এই মেলা হয়ে থাকে। দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে আসতে শুরু করে মাছ বা মাছবাহি পরিবহনগুলো। মেলার আগের দিনগুলোতে চলতে থাকে মাইকিং সহ বিভিন্ন প্রচার- প্রচরনা । প্রতি বছরের ন্যায় বড় বড় মাছের অপেক্ষায় থাকে দুপচাঁচিয়া সহ আশেপাশের উপজেলার মানুষ। নবান্ন এলেই যেন বিলুপ্তি হওয়া সহ অতি পরিচিত বা নিত্য নতুন মাছের দেখা মেলে এই মাছের মেলায়। বড় হক বা ছোট হক সামর্থ্য অনুযায়ী মাছ কেনে এই এলাকার মানুষ। তবে সম্মেলিত ভাবেও মাছ কিনতে দেখা যায় অনেক কে। জামাইদেরও চোখে পরে মাছ কেনার ব্যস্ততায়। তবে মেলার সময় কম থাকায় খুব ভোর হতে আসতে হয় মাছের মেলাতে। স্থায়ী মাছ বিক্রেতার পাশাপাশি যেন মৌসুমী মাছ বিক্রেতারও দেখা মেলে। বড় বড় মাছ দেখা বা কেনার জন্য শিশু, স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী সহ সকল বয়সী মানুষদের থাকে উপচেপড়া ভিড়।

মৎস্য আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিসমিল্লাহ মৎস্য আড়ৎতের পরিচালক রতন মন্ডল বলেন মাছের মেলাতে আসা মাছ গুলো সাধারন মানুষদের কেনার সামর্থ্যরে মধ্যে মূল্য থাকায় সন্তষ্ট থাকে মাছ ক্রেতারা।
মৎস্য আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও আলম মৎস্য আড়ৎদের পরিচালক আবু বক্কর সিদ্দিক আলম বলেন, নবান্ন আগের দিন রাত ১০ টা থেকে মাছ কেনা-বেচা শুরু হয়। রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে বড় বড় মাছ মেলাতে আছে।

দুপচাঁচিয়া মৎস্য আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি কাউন্সিল মুহিদুল ইসলাম বলেন,বিগত কয়েক বছর ধরে ঐতিহ্য সাথে এ মেলা চলে আসছে। মেলার জায়গা পরিসরে কম হওয়ায় ভোগান্তিতে পরতে হয় মেলায় মাছ কিনতে আসা ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের।


Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (1) in /home/ajkersangbad/public_html/wp-includes/functions.php on line 5275

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (1) in /home/ajkersangbad/public_html/wp-includes/functions.php on line 5275